ভাল কাজে মনোনিবেশ করার সহজ উপায়। এ জগতে সুস্থ মস্তিষ্কের কোন মানুষ খারাপ কাজের অপবাদ বহন করতে চাই না। আমাদের সমাজে অনেকেই আছে যারা বিভিন্ন প্রকার খারাপ কাজে লিপ্ত। তারা তাদের খারাপ কাজকে অনুভব করতে পারে, বুঝতে পারে, এটি খারাপ কাজ। তবুও সেই খারাপ কাজ ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারে না। তাদের উদ্দেশ্যে একটি গল্প দিয়ে আমি এই লেখাটি শুরু করছি আশা করি কিছুটা হলেও কাজে লাগবে।
কোন এক দেশে একজন দুষ্টু লোক বাস করত। লোকটি কখনই ভাল কাজ করত না। সব সময় সে খারাপ কাজে লিপ্ত থাকতো। কখনো কারো ক্ষতি করা, কখনো কাউকে খারাপ পরামর্শ দেওয়া, এক কথায় সব সময় সে খারাপ কাজে ব্যস্ত থাকতো। তার দ্বারা কখনো ভাল কাজের আশা কেউই করতে পারে না। এক পর্যায়ে লোকটির মধ্যে অনুভূতি জাগতে শুরু করলো। কিভাবে ভাল কাজ করা যায়। সে তার খারাপ কাজের জন্য একটু একটু করে অনুতপ্ত হতে থাকলো। এমতাবস্থায় একদিন লোকটি দেখতে পেলো। তার পাশের জঙ্গলে একজন সাধক ব্যক্তি ধ্যান করছেন। তখন লোকটি গিয়ে ওই সাধক ব্যক্তির সামনে হাজির হলেন। এবং অপেক্ষা করতে থাকলেন। যতক্ষণ পর্যন্ত সাধু ব্যক্তির ধ্যান না ভাঙ্গে। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর সাধক ব্যক্তি তার ধ্যান ভেঙে লোকটিকে জিজ্ঞাসা করলেন। কে তুমি? কি চাও? তখন লোকটি বলল আমি একজন খারাপ লোক। আমি কখনো কোন ভাল কাজ করতে পারিনা। এ কারনে আমি এখন বেশ অনুতপ্ত। আমি চাই কিছু ভাল কাজ করতে। কিন্তু সেটিও করতে পারছিনা। তাই আপনি বলুন আমি কিভাবে ভাল কাজ করতে পারি। তখন সাধু ব্যক্তি লোকটিকে বলল, ঠিক আছে তুমি তাহলে মাটির উপরে একপা উঁচু করে দাঁড়াও। লোকটি তখন তার বাম পা উঁচু করে দাঁড়ালো। সাধন বললেন আচ্ছা ঠিক আছে এবার তুমি ডান পা উচু কর। লোকটি তখন বলল বাবা এটা কি করে সম্ভব? দুই পা উঁচু করে দাঁড়ানো যায় না। আমিতো তাহলে মাটিতে পড়ে যাব। সাধু ব্যক্তি লোকটিকে বললেন তুমি কি এটা ভেবে বলছো? তুমি কি নিশ্চিত? যে দুই পা তুলে দাঁড়ালে তুমি মাটিতে পড়ে যাবে। লোকটি বলল হ্যাঁ আমি নিশ্চিত। তখন সাধু ব্যক্তি লোকটিকে বললেন আচ্ছা তাহলে তুমি তোমার মাথার উপর যে গাছের ঢাল টি ঝুলে আছে, একহাত দিয়ে তুমি ওই ঢালটি ধরো এবং আস্তে আস্তে তোমার হাতের উপর শরীরের ভর নিতে শুরু কর। কিছুক্ষণ পর সাধু ব্যক্তি লোকটিকে আবার বললেন । আচ্ছা এবার তুমি অন্য হাতটি দিয়েও গাছের ঢালটি ধরো এবং দুই হাতের উপর ভর দিয়ে তুমি ঢালটি ধরে ঝুলে থাকো। লোকটি তখন দুইহাত দিয়ে ঢালটি ধরে ঝুলতে থাকলো এবং বেশ সুখ বা শান্তি অথবা কি বলা যায় এটাকে? ভাল লাগা অনুভব করতে থাকলো। সাধারণত আমরা যখন ঝুলে থাকি অথবা দোলনায় দোল খায়, তখন সকলেরই বেশ আনন্দ বা ভাল লাগে। লোকটিও একই রকম আনন্দ অনুভব করতে থাকলো। এমতাবস্থায় সাধু, লোকটিকে বললেন। শোনো বাবা তুমি তোমার খারাপ কাজ ছাড়তে চাইলে অবশ্যই তার বিপরীতে তোমাকে কিছু ভাল কাজ করতে হবে। তাহলে তুমি তোমার খারাপ কাজ করা থেকে মুক্তি লাভ করতে পারবে। কেননা ভাল কাজের মধ্যে যে সুখ-শান্তি লুকিয়ে আছে সেটি তুমি এখনো অনুভব করতে পারোনি। এজন্যই তুমি সব সময় খারাপ কাজে লিপ্ত ছিলে। এখন থেকে তুমি চেষ্টা কর ভাল কাজ করতে। যখন তুমি ভাল কাজের আনন্দটা অনুভব করতে পারবে। তখন তুমি তোমার খারাপ কাজগুলো পরিহার করতে পারবে। এই গল্পটির মাধ্যমে আমরা যেটি বুঝতে পারি। তা হলো কোন খারাপ কাজকে পরিত্যাগ করতে হলে শুরুতে ভাল কাজ করতে হবে। ভাল কাজের যে শান্তি বা আনন্দ উপভোগ করা যায়। সেটি যখন একজন খারাপ ব্যক্তি বুঝতে পারবে। তখন সে ক্রমান্বয়ে খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকবে। তাই আমাদের উচিত প্রত্যেকদিন কিছু না কিছু ভাল কাজ করা এবং এই ভাল কাজের মধ্য থেকে অন্তরের মধ্যে একটি ভাল লাগা বা ভাল অনুভূতি তৈরি করা। যেটি আমাদের জীবনকে সুন্দর থেকে আরো সুন্দর করে গড়ে তোলার সুযোগ করে দিবে। তাই আসুন আমরা প্রত্যেকদিন কিছু না কিছু ভাল কাজ করতে চেষ্টা করি। ছোট থেকেই শুরু করি। আস্তে আস্তে বড় হবে। প্রতিদিন না পারলেও অন্তত দুই দিন, তিন দিন, পর পর এমন একটি ভাল কাজ করি জেটি থেকে নিজের মধ্যে ভাল লাগা বা ভাল অনুভূতি তৈরি হবে। দুই দিন, তিন দিন, পর পর না হলেও অন্তত সপ্তাহে একবার। সপ্তাহে একবার না হলেও। ১৫ দিন পর একবার সেটিও যদি না হয় অন্তত মাসে একটি বারের জন্য হলেও একটি ভাল কাজ করি। এতে করে আমাদের জীবনের প্রকৃত অস্তিত্ব পরিলক্ষিত হবে। আসুন আমরা নিজেরা ভাল থাকি এবং অন্যদের ভাল থাকতে যথাসাধ্য সহায়তা করি। লেখাটি পড়ে যদি আপনার মানসিকতায় কিঞ্চিত পরিবর্তন অনুভব করতে পারেন বা ভাল লেগে থাকে। তাহলে আপনার প্রিয়জন, বন্ধুবান্ধব, আত্মীয়-স্বজন সকলের মধ্যে শেয়ার করে, তাদের মধ্যেও এই ভাললাগার অনুভূতি তৈরি হওয়ার সুযোগ করে দিন। আর একটি কথা না বললেই নয় আমি কিন্তু প্রফেশনাল বা পেশাদার কোন লেখক না।  ভাল মানের লেখা আমি কখনই আমার কাছ থেকে আশা করতে পারি না। তবুও চেষ্টা করেছি কিছুটা বোঝানোর জন্য। আমার এই তুচ্ছ প্রচেষ্টায় যদি কারো একটু পরিবর্তনের বা ভাল কাজ করার অনুভূতি জাগে সেটাই হবে আমার বড় পাওয়া। ধন্যবাদ

পিএইচপি প্রোগ্রামিং টিউটোরিয়াল

error: Content is protected !!